আপনার মন্তব্য উৎসাহ ও প্রেরণার সহায়ক !

আপনার মন্তব্য উৎসাহ ও প্রেরণার সহায়ক !

শুক্রবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১১

সব্জির পাটিসাপটা

 

উপকরনঃ
১। ময়দা ১ কাপ
২। চালের গুড়া ২ কাপ
৩। পানি সাড়ে ৪ কাপ
৪। কয়েক ধরনের সব্জী ( কাটার পরে মাঝারী এক বাটির পরিমান হবে)
৫। তেল ৫ টেবিল চামচ
৬। লবণ 
৭। পেয়াজ
৮। কাঁচামরিচ
৯।ডিম, মাংস


যেভাবে করবেনঃ

১।সব্জী রান্নাঃ
প্রথমে সব্জীগুলো ধুয়ে ছোট ছোট টুকরো করে নিন,(কুচিকুচি করে নিলে ভালো হয়)। কড়াই এ অল্প তেল দিয়ে পেয়াজ কঁচি, মরিচ দিয়ে নাড়াচাড়া করতে থাকেন। হাল্কা বাদামী হয়ে এলে সব্জী ছেড়ে দিন। পরিমান মত লবন দিতে ভুলে গেলে আমার দোষ নাই। সবজি রান্নার শেষ পর্যায়ে এতে একটা ডিম ছেড়ে দিয়ে ভালো করে নাড়াচাড়া করুন, মাংস রান্না করা থাকলে দুই এক টুকরো মাংস হাত দিয়ে ঝুরি করে দেন, টেস্ট বাড়বে।
ব্যাস্‌ সব্জী রান্না হয়ে গেল।

২। গোলা তৈরীঃ
বাটিতে ২ কাপ চালের গুড়ো আর এক কাপ ময়দা আর অল্প লবণ ভালোভাবে মেশান। সাড়ে ৪ কাপ ( ৪ কাপ দিলেও হবে) পানি দিয়ে ভালোভাবে গোলা তৈরী করুন।

৩। পিঠা তৈরীঃ 
ফ্রাইপেন চুলায় দিয়ে গরম হতে দিন, এই ফাঁকে একটা ছোট বাটিতে কিছু তেল ঢেলে নিন। বাসায় বেগুন আছে কিনা দেখেন, থাকলে একটু বেগুন সহ বেগুনের বোটা কেটে ধুয়ে নিন। 
বাটি থেকে বেগুনের বোটায় তেল নিয়ে ফ্রাইপেনে আলতোভাবে মেখে নিন। হাফ কাপ পরিমান গোলা নিয়ে ফ্রাইপেনে ছেড়ে পেন টিকে দ্রুত ঘোরাতে থাকুন যেন গোলাটির আকার একটি রুটির আকারের হয়।
পেনের রুটির ভেজা ভাব চলে গেলে ২ চামচের মতো সব্জী নিয়ে রুটির উপরে একপাশে এক লাইনে সব্জী দিন। একটু পরে পাতলা চামচ দিয়ে রুটি ভাঁজ করে নিন।
গরম গরম পরিবেশন করুন। 

টিপ্‌সঃ
১। ময়দা বেশী হলে পিঠা নরম হবে।
২। চালের গুড়ো বেশী হলে পিঠা ভেঙ্গে যাবে।
৩। তেল বেশী হলে গোলা পেনে ভালোভাবে বসবেনা।
৪। গোলা কমপক্ষে এক ঘন্টা ভিজিয়ে নিলে ভালো হয়।
৫। বেগুনের বোটার পরিবর্তে পাতলা পরিষ্কার কাপড় দিয়েও তেল লাগানো যায়, তবে নতুন রাধুনীদের না করাই ভালো।  

নেট থেকে

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন