আপনার মন্তব্য উৎসাহ ও প্রেরণার সহায়ক !

আপনার মন্তব্য উৎসাহ ও প্রেরণার সহায়ক !

বুধবার, ৯ মে, ২০১২

করলা ভাজি


সাধারন খাবারের মাঝে ‘করলা ভাজি’ আমার ফেবারেট, সুস্বাদু করলা ভাজি হলে আর কিছু লাগে না। খুব সহজ রান্না, কিন্তু অত্যান্ত সুস্বাদু। 

করলা ভাল করে ধুয়ে পানি শুকিয়ে নিন। কেটে ফেলার পর আর ধোয়া চলবে না।




যেভাবে ইচ্ছা কেটে নিন। পুনিমার চাঁদের মত কিংবা অর্ধচন্দ্রের ন্যায়।

ইচ্ছা হলে ছুরি কিংবা চপার ব্যবহার করতে পারেন।

খুব সহজ রেসিপিঃ কড়াইতে পরিমান মত তেল ঢেলে কাটা করল্লা এবং পরিমানমত পেঁয়াজ কেটে ছেড়ে দিন। পরিমান মত লবণ দিতে ভুলবেন না। (আর যারা একটু হলুদ রঙ চান তারা সামান্য হলুদ দিতে পারেন)

কাঠের খুন্তি ব্যবহার করবেন, ধাতব খুন্তি ব্যবহারে তিতা হয়ে যেতে পারে।

ঝরঝরে ভাজা চাইলে ঢাকনা দিবেন না, আর ঢাকনা দিলে পানি জমে ভিজে ভাজা হতে পারে। আপনার ইচ্ছা।
এবার সব সাজিয়ে বসে পড়ুন। অন্য তরকারী থাকলে সব নিয়ে সাজিয়ে ফেলুন।


সাজিয়ে আমার স্বাদের করলা ভাজি।

আজকের খাওয়া অনেক মজার ছিল।
সতর্কতাঃ করলা কাটার পর ধোয়া চলবেনা। আর লোহা বা পিতল মানে ধাতব খুন্তি ব্যাবহার করা চলবেনা। খুন্তি ব্যাবহারে করলা তিতা হলে আমার দোষ নাই। আর আমি করলা ভাজাতে শুধু পেঁয়াজ আর লবন ছাড়া আর কিছু দেইনা। ওহ!! হ্যা, তেল দেই।

২টি মন্তব্য:

  1. সাহাদাত উদারজির ছবি ও রেসিপি দিয়েছেন অথচ উনার নামের কোন উল্লেখ নাই ।

    উত্তরমুছুন
  2. সাহাদাত উদারজির ছবি ও রেসিপি দিয়েছেন অথচ উনার নামের কোন উল্লেখ নাই ।

    উত্তরমুছুন