আপনার মন্তব্য উৎসাহ ও প্রেরণার সহায়ক !

আপনার মন্তব্য উৎসাহ ও প্রেরণার সহায়ক !

শুক্রবার, ৮ অক্টোবর, ২০১০

ইলিশ মাছের ঝোল

আলু-ইলিশের ঝোল, কিউব করা আলু আর একই রকম সাইজের ইলিশ মাছের টুকরা একত্রে ঝোল ঝোল করে রান্না করা।

কি কি উপকরণ লাগবে?

ইলিশ মাছ - ছোট এক বাটি, ১/২ ইঞ্চি কিউব করে কাটা
ইলিশ মাছের ডিম - ১/২ বাটি (২ ভাগ) পরিমাণ, মাছের মতই ১/২ ইঞ্চি কিউব করে কাটা
(পেটের এবং পিঠের মাছ হলে ভাল হয়, এতে রান্নার পরও মাছ ভেঙ্গে যাবে না)

আলু - ২ টা মাঝারী, আধা ইঞ্চি কিউব করে কাটা
পেয়াজ কুচি - ২ টা মাঝারী
কাচা মরিচ - ৪ টা (ঝাল বেশি চাইলে আরো একটা বেশি দিতে পারেন)
মরিচ গুঁড়া - ১ চা চামচ
হলুদ গুঁড়া - ১/২ চা চামচ
আদা বাটা - ১/২ চা চামচ
রসুন বাটা - ১ চা চামচ
জিরা গুঁড়া - ১/২ চা চামচ
লবণ - পরিমাণমতো
তেল - ২ টেবিল চামচ
চিনি - ১ চিমটি (ডায়াবেটিস থাকলে দেবেন না)
ধনে পাতা কুচি - ১ টেবিল চামচ
পানি - ২/৩ কাপ

প্রণালীঃ

হাঁড়িতে তেল দিয়ে একটু গরম হলে পেয়াজ কুচি ছেড়ে দিন। হালকা বাদামী রঙ ধারণ করলে চুলার আঁচ কমিয়ে পরিমাণমতো লবণ দিন, আদা-রসুন, হলুদ-মরিচ গুঁড়া, জিরা গুঁড়া দিয়ে নাড়ুন। সব মশলা ২/৩ মিনিট কষান। এ সময়ে চুলার আঁচ কমানো থাকবে।

মশলা কষানো হলে মাছ ছেড়ে দিয়ে ৫ মিনিট নেড়ে-নেড়ে মাছ কষান। কষানো হলে ২/৩ কাপ পানি দিয়ে চুলার আঁচ বাড়িয়ে দিন। ৪/৫ মিনিট পর পানি ফুটতে শুরু করলে আলু দিয়ে দিন। ঢেকে রাখুন। এ সমেয় ঢাকনা তুলে মাঝে মাঝে হালকা ভাবে নেড়ে দিন যেন মাছ ভেঙ্গে না যায়। ২/৩ মিনিটে মাথায় চুলার আঁচ কমিয়ে রান্না হতে দিন।

আলু সিদ্ধ হয়ে এলে কাঁচা মরিচ এবং চিনি দিয়ে আরো কিছুক্ষণ রান্ন করুন। ঝোল কমে খানিকটা মাখা-মাখা হলে নামিয়ে ধনে পাতা কুচি ছড়িয়ে দিন।

পরিবেশনের জন্য তৈরী। গরম ভাতের সাথে খুবই ভাল লাগবে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন